শিরোনাম

সরকারের ফরমায়েশি রায় : বিএনপি

নিউজ ডেস্ক্রঃ একুশে অগাস্টরে গ্রনেডে হামলার মামলার বিচার সরকাররে রাজনতৈকি প্রতহিংিসা চরতর্িাথ করতে আদালত ‘ফরমায়শেি রায়’ দয়িছেে বলে তা প্রত্যাখ্যান করছেে বিএনপি।

বুধবার আলোচতি এ মামলার রায়রে পর এক সংবাদ সম্মলেনে দলটরি মহাসচবি মর্জিা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এই প্রতক্রিয়িা জানান।

তনিি বলনে, “বএিনপি মনে কর,ে এই রায় রাজনতৈকি উদ্দশ্যেপ্রণোদতি, ক্ষমতাসীন সরকাররে রাজনতৈকি প্রতহিংিসা চরতর্িাথ করার নগ্ন প্রকাশ। আমfakhrul-yhরা এই ফরমায়শেি রায় প্রত্যাখ্যান করছ।

ঢাকার এক নম্বর দ্রুত বচিার ট্রাইব্যুনালরে বচিারক শাহদে নূর উদ্দনি এই মামলার রায়ে বএিনপ-িজামায়াত জোট সরকাররে স্বরাষ্ট্র প্রতমিন্ত্রী লুৎফুজ্জামান বাবর, সাবকে উপমন্ত্রী আবদুস সালাম পন্টিুসহ ১৯ জনরে মৃত্যুদণ্ডরে রায় দয়িছেনে।

খালদো জয়িার বড় ছলেে বএিনপরি ভারপ্রাপ্ত চয়োরম্যান তারকে রহমান, খালদো জয়িার রাজনতৈকি সচবি হারছি চৌধুরীসহ ১৯ জনকে দওেয়া হয়ছেে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড।

২০০৪ সালরে ২১ অগাস্ট বঙ্গবন্ধু এভনিউিয়ে আওয়ামী লীগরে সন্ত্রাসবরিোধী শোভাযাত্রায় গ্রনেডে হামলায় আইভি রহমানসহ ২৪ জন নহিত হন; আহত হন কয়কেশ নতো-র্কমী।

সদেনি অল্পরে জন্য প্রাণে বঁেচে যান আজকরে প্রধানমন্ত্রী আওয়ামী লীগ সভানত্রেী শখে হাসনিা। কন্তিু গ্রনেডেরে প্রচণ্ড শব্দে তার শ্রবণশক্তি নষ্ট হয়।

শখে হাসনিাকে হত্যা করে দলকে নতেৃত্বশূন্য করতইে এই হামলা হয়ছেলি এবং তাতে তৎকালীন ক্ষমতাসীন বএিনপ-িজামায়াত জোটরে র্শীষ নতোদরে প্রত্যক্ষ মদদ ছলি বলে এ মামলার রায়ে উঠে আস।

মর্জিা ফখরুল সাংবাদকিদরে বলনে, “জাতরি র্দুভাগ্য এই- সরকার তার প্রতহিংিসা চরতর্িাথ করবার জন্যইে আদালতকে ব্যবহার করে আরকেটি মন্দ দৃষ্টান্ত  স্থাপন করল, যমেনটি করছেে মথ্যিা মামলায় দশেনত্রেী বগেম খালদো জয়িাকে কারাদণ্ড দয়ি।ে

“আমরা সরকাররে এহনে প্রতহিংিসামূলক আচরণ ও আদালতরে মাধ্যমে তা র্কাকর করার নোংরা কৌশল। সজাগ হয়ে অনর্বিাচতি এই সরকারকে হটয়িে জনগণরে নর্বিাচতি সরকার প্রতষ্ঠিার সংগ্রামে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানাচ্ছ।

সংবাদ সম্মলেনে বএিনপরি স্থায়ী কমটিরি সদস্য সাবকে আইনমন্ত্রী মওদুদ আহমদ বলনে, “এই মামলায় তারকে রহমানরে বরিুদ্ধে কোনো প্রত্যক্ষ সাক্ষ্যপ্রমাণ, উপাত্ত-তথ্য প্রমাণ আদালতে উপস্থাপন করা হয় নাই। তা সত্ত্বওে তাকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দয়িছেে রাজনতৈকি উদ্দশ্যে সাধন করার জন্য।

নয়াপল্টনে দলরে কন্দ্রেীয় র্কাযালয়ে এই সংবাদ সম্মলেনে দলরে স্থায়ী কমটিরি সদস্য খন্দকার মোশাররফ হোসনে, মর্জিা আব্বাস, নজরুল ইসলাম খান, আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী, জ্যষ্ঠে যুগ্ম মহাসচবি রুহুল কবরি রজিভী, কন্দ্রেীয় নতো শরিনি সুলতানা, আবুল কালাম আজাদ সদ্দিকিী, তাইফুল ইসলাম টপিু, মুনরি হোসনে, সুলতানা আহমদে, ফরদিা ইয়াসমীন প্রমূখ উপস্থতি ছলিনে।

74 total views, 3 views today

121,800 total views, 581 views today

প্রধান খবর

  • আজ ৯ ডিসেম্বর কুমারখালী হানাদার মুক্ত দিবস

    কুমারখালি প্রতিনিধি : ১৯৭১ সালের ৯ ডিসেম্বর এই দিনে পাকিস্তানী হানাদার বাহিনীকে পরাজিত করে কুমারখালীর মুক্তিযোদ্ধারা বিজয় ছিনিয়ে এনেছিলেন এবং কুমারখালীকে হানাদার মুক্ত করেছিলেন।

    ১৯৭১ সালের ৭ ডিসেম্বর সকালে মুক্তিযোদ্ধারা পরিকল্পিত ভাবে কুমারখালীতে প্রবেশ করে শহরের প্রাণকেন্দ্রে অবস্থিত কুন্ডুপাড়ার রাজাকারদের ক্যাম্প আক্রমণ করেন। রাজাকার কমান্ডার ফিরোজ বাহিনীর সঙ্গে মুক্তিযোদ্ধাদের তুমুল যুদ্ধ শুরু হয়।

    এ খবর কুষ্টিয়া জেলা শহরে অবস্থানরত পাক-সেনাদের কাছে পৌঁছালে তারা দ্রুত কুমারখালীতে এসে গুলিবর্ষণ করতে থাকলে পুরো শহর আতঙ্ক গ্রস্থ হয়ে পড়ে। এবং মুক্তিযোদ্ধারা তাদের অkkkkপর্যাপ্ত অস্ত্র ও সংখ্যায় কম থাকায় শহর ত্যাগ করেন।

    এ সময় পাকিস্তানি বাহিনী ও রাজাকাররা কুমারখালী শহরজুড়ে হত্যাযজ্ঞ, অগ্নিসংযোগ ও লুটতরাজ শুরু করে।৭ ডিসেম্বরের যুদ্ধে পাকিস্তানী বাহিনীর হাতে আওয়ামী লীগ নেতা মুক্তিযোদ্ধা তোসাদ্দেক হোসেন ননী মিয়া শহীদ হন।
    পাকিস্তানী হানাদারদের হত্যাযজ্ঞের শিকার হয়েছিলেন মুক্তিকামী বীর বাঙালী সামসুজ্জামান স্বপন, সাইফুদ্দিন বিশ্বাস, আব্দুল আজিজ মোল্লা, শাহাদত আলী, কাঞ্চন কুন্ডু, আবু বক্কার সিদ্দিক, আহমেদ আলী বিশ্বাস, আব্দুল গনি খাঁ, সামসুদ্দিন খাঁ, আব্দুল মজিদ ও আশুতোষ বিশ্বাস মঙ্গল।

    পরবর্তীতে মুক্তিযোদ্ধারা সুসংগঠিত হয়ে ৯ ডিসেম্বর পাকবাহিনীর ক্যাম্পে (বর্তমানে কুমারখালী উপজেলা পরিষদ) আক্রমণ করেন।

    দীর্ঘসময় যুদ্ধের পর পাকিস্তানি বাহিনী মুক্তিযোদ্ধাদের আক্রমণের কাছে টিকতে না পেরে দ্রুত ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যায় । ৯ ডিসেম্বরের যুদ্ধে মুক্তিযোদ্ধাদের হাতে রাজাকার কমান্ডার খুশি মারা যায়।

    এইদিন কুমারখালী শহর হানাদার মুক্ত হওয়ার পর সর্বস্তরের জনতা এবং মুক্তিযোদ্ধারা রাস্তায় নেমে আনন্দ মিছিল বের করেন।

    6,793 total views, 503 views today

আজকের খবর

সম্পাদক ও প্রকাশক : খালিদ হাসান সিপাই.

নির্বাহী সম্পাদক : মাজহারুল হক মমিন।

বড় জামে মসজিদ মার্কেট, এন এস রোড কুষ্টিয়া।

০১৭১৬২৬৮৮৫৮, E-mail: Kushtiardiganta@gmail.com .