শিরোনাম

যশোর-১ : জামায়াতের প্রার্থী আজীজুর রহমানের জয় সময়ের ব্যাপার

যশোর প্রতিনিধিঃ  যশোর-১ (শার্শা) নির্বাচনী এলাকার প্রার্থী হিসেবে জামায়াত নেতা মাওলানা আজীজুর রহমানের মনোনয়নপত্র সংগ্রহের পর এলাকার সর্বস্তরের মানুষের মাঝে ব্যাপক উদ্দীপনা দেখা যাচ্ছে। তার পক্ষে সৃষ্টি হয়েছে গণজোয়ার। এমন একজন ন্যায়নিষ্ঠ, সরলপ্রাণ আলেমের বিজয় দেখতে চান এলাকাবাসী।

মাওলানা আজীজুর রহমানের বাড়ি শার্শা উপজেলার বাগআঁচড়া গ্রামে। তার জন্ম ১৯৫১ সালে। সাতক্ষীরা জেলার কলারোয়া উপজেলার হামিদপুর আলীয়া মাদরাসা থেকে ১৯৬৬ সালে দাখিল, ১৯৬৮ সালে আলিম, ১৯৭০ সালে ফাজিল পাশ করেন এবং ১৯৭৩ সালে কুষ্টিয়া কুওয়াতুল ইসলাম আলীয়া মাদরাসা থেকে কামিল পাশ করেন।

১৯৭২ সালের ২ মে বাগআঁচড়া ইউ366144_196নাইটেড মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষক পদে যোগদানের মধ্য দিয়ে তার কর্মজীবন শুরু। খুব দ্রুতই একজন সুশিক্ষক হিসাবে এলাকার সর্বশ্রেণীর মানুষের কাছে তিনি পরিচিত হয়ে উঠেন। সুনামের সাথে ৩৯ বছর ওই প্রতিষ্ঠানে শিক্ষকতা শেষে ২০১১ সালে ৩০ এপ্রিল তিনি অবসর নেন।

কিশোর বয়স থেকেই তিনি সমাজসেবামূলক কাজে নিবেদিত ছিলেন। মানবকল্যাণই হয়ে উঠে তার জীবনের লক্ষ্য। একজন বিন¤্র আলিম, সুশিক্ষক ও সমাজসেবক হিসাবে শার্শা থানার জাতি-ধর্ম ও দল-মত নির্বিশেষে সকল মানুষের কাছে তিনি প্রিয় হয়ে ওঠেন।

১৯৭৯ সালে তিনি জামায়াতে ইসলামীতে যোগদান করেন। থানা জামায়াতের দায়িত্ব আসে তার উপর এবং সাত বছর পর ১৯৮৬ সালে যশোর জেলার আমির নির্বাচিত হন। ২৬ বছর দায়িত্ব পালন শেষে ২০১১ সালে ডিসেম্বরে আমিরের দায়িত্ব থেকে তিনি অব্যাহতি নেন। জেলা সীমান্তের এক গ্রামে বাস ও শিক্ষকতা করেও কঠোর পরিশ্রমের মাধ্যমে জেলা শহর থেকে প্রত্যন্ত গ্রাম পর্যন্ত তিনি ইসলাম, মানবতা ও সংগঠনকে সমন্বিত ভাবে বিস্তৃতির কাজ করেন।

৮০ ও ৯০ দশকসহ পরবর্তী দুই দশকেও গণঅধিকার আন্দোলনে জামায়াত উজ্জ্বল ভূমিকা পালন করে। সকল নির্বাচনেও জামায়াতের ভূমিকা ও ফলাফল খুবই অর্থবহ। তার নিরলস চেষ্টা ও পরিশ্রমে জেলার বিভিন্ন এলাকায় মসজিদ, শিক্ষা ও সমাজসেবা প্রতিষ্ঠান গড়ে উঠেছে।

২০০৮ সালের নবম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে যশোর-১ শার্শা আসন থেকে ১৮ দল সমর্থিত প্রার্থী হিসাবে নির্বাচন করে মাত্র সাড়ে পাঁচ হাজার ভোটে তিনি পরাজিত হন।

দীর্ঘ শিক্ষকতা জীবনে তা অসংখ্য ছাত্র সারা দেশে ছড়িয়ে রয়েছে। অনেকেই সরকারি-বেসরকারি উচ্চপদস্থ কর্মকর্তা। সামাজিক কর্মকা-ের কারণে শার্শাতে রয়েছে তার বিপুলসংখ্যক ভক্ত ও অনুসারী। বিশেষ করে প্রতিবছর চিকিৎসাশিবির ও চক্ষুক্যাম্প স্থাপন করে মানুষের সেবা দিয়ে আসছে। এ সব মানুষ মাওলানা আজীজুর রহমানকে কৃতজ্ঞচিত্তে স্মরণ করেন। সকলেই চান তার সাফল্য। এ বারের একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে তিনি একজন প্রার্থী। তার জয়ের ব্যাপারে এলাকাবাসী আশাবাদী।

78 total views, 1 views today

181,682 total views, 616 views today

প্রধান খবর

  • বাংলাদেশ আজ জয় দিয়েই ওয়ানডে সিরিজ শুরু করতে চায়

    ঢাকা অফিস: ওয়েস্ট ইন্ডিজকে টেস্ট সিরিজে হোয়াইটওয়াশ করেছে বাংলাদেশ। এবার দলটির বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজ খেলেতে মাঠে নামবে টাইগাররা। আজ থেকে শুরু হওয়া তিন ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজে জয় দিয়েই শুরু করতে চায় বাংলাদেশ। অবশ্য মাঠে নামার আগে মানসিকভাবে এগিয়ে বাংলাদেশ দলই। কারণ ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজ জয়ের সুখ স্মৃতি নিয়েই ওয়ানডে সিরিজ শুরু করবে টাইগাররা। আরো একটি কারণে এগিয়ে আছে টাইগাররা। টেস্টে না থাকলেও ওয়ানডে সিরিজে দলের হয়ে মাঠে নামবে বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান ও দেশের সেরা ওপেনার তামিম ইকবাল। মিরপুর শেরে বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ সময় দুপুর ১টায় শুরু হবে প্রথম ওয়ানডে।ddddd
    তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজের প্রথম ম্যাচেই জয়ের টার্গেট বাংলাদেশের। ফলে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে আজ আত্মবিশ্বাসের সাথেই ওয়ানডে সিরিজ শুরু করবে টাইগাররা। ২০১২ সালে দেশের মাটিতে ও সর্বশেষ ওয়ানডে সিরিজ এবং চলতি সফরে দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজ জয়ের সুখস্মৃতি রয়েছে টাইগারদের। তাই এমন সুখস্মৃতি নিয়ে ওয়ানডে সিরিজ খেলতে নামবে মাশরাফির দল। ২০১২ সালে দেশের মাটিতে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সর্বশেষ ওয়ানডে সিরিজ খেলেছিলো টাইগাররা। পাঁচ ম্যাচের ঐ সিরিজে ৩-২ ব্যবধানে জিতে নেয় বাংলাদেশ। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সর্বশেষ ওয়ানডে সিরিজটি জিতেছে বাংলাদেশ। চলতি বছরের জুলাইয়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে তিন ম্যাচের সিরিজটি ২-১ ব্যবধানে জিতে মাশরাফির দল। এছাড়া  চলতি সফরে টেস্ট ফরম্যাটের দুই ম্যাচে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে হোয়াইওয়াশ করেছে সাকিব আল হাসানের দলটি। একচেটিয়া পারফরমেন্স করে দু’টি টেস্টই জিতে নেয় বাংলাদেশ। চট্টগ্রামে প্রথম টেস্টে ৬৪ রানে এবং ঢাকায় দ্বিতীয় ম্যাচে ইনিংস ও ১৮৪ রানে জয় পায় টাইগাররা। এই সিরিজ দিয়ে আবারো ওয়ানডেতে ফিরছেন দলের দুই সেরা তারকা সাকিব-তামিম। এশিয়া কাপ চলাকালীন ইনজুরিতে পড়েছিলেন তারা। তবে ইনজুরি থেকে সুস্থ হয়ে ইতোমধ্যে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফিরেছেন সাকিব। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজে নেতৃত্ব দিয়েছেন তিনি। ব্যাট-বল হাতে উজ্জল ছিলেন সাকিব। ব্যাট হাতে ১১৫ রান ও বল হাতে ৯ উইকেট শিকার করেন সাকিব। ফলে সিরিজ সেরাও হন তিনি। সাকিবের চিন্তা দূর হবার পর তামিমকে নিয়ে চিন্তিত ছিলো বাংলাদেশ। তবে বাংলাদেশের চিন্তা মুছে দেন তামিমও। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে প্রস্তুতি ম্যাচে ফিরে সেঞ্চুরি করেই নিজের যোগ্যতা প্রমাণ করেন। প্রস্তুতি ম্যাচে জয়ও পায় বাংলাদেশ। অপর দিকে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বাংলাদেশ সফরটা মোটেও ভালো হয়নি। কারণ টেস্টে হোয়াইটওয়াশ হয়েছে দলটি। এবার ওয়ানডে সিরিজ। ওয়ানডে সিরিজে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে নেতৃত্ব দিবেন রোভম্যান পাওয়েল। নিয়মিত অধিনায়ক জেসন হোল্ডার ইনজুরির কারণে বাংলাদেশ সফরে আসেননি। তাই টেস্ট সিরিজে অনিয়মিত অধিনায়কের অধীনে খেলেছিলো ওয়েস্ট ইন্ডিজ। টেস্ট ফরম্যাটে ক্যারিবীদের নেতৃত্ব দিয়েছিলেন ওপেনার ক্রেইগ ব্রাফেট। টেস্টে হারলেও ওয়ানডে সিরিজে ঘুরে দাঁড়াতে মরিয়া থাকবে দলটি। তাই জয়ের আত্মবিশ্বাসে থাকলেও ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজ নিয়ে সর্তক বাংলাদেশ। সিরিজটি বেশ প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ হবে বলে মনে করেন বাংলাদেশের অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা ও কোচ স্টিভ রোডস।
    বাংলাদেশ দল : মাশরাফি বিন মর্তুজা (অধিনায়ক), সাকিব আল হাসান (সহ-অধিনায়ক), তামিম ইকবাল, ইমরুল কায়েস, সৌম্য সরকার, লিটন কুমার দাস, মুশফিকুর রহিম, মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ, রুবেল হোসেন, মুস্তাফিজুর রহমান, মেহেদি হাসান মিরাজ, নাজমুল ইসলাম অপু, মোহাম্মদ মিথুন, সাইফ উদ্দিন, আবু হায়দার ও আরিফুল হক।
    ওয়েস্ট ইন্ডিজ দল : রোভম্যান পাওয়েল (অধিনায়ক), মারলন স্যামুয়েলস, ড্যারেন ব্রাাভো, রোস্টন চেজ, শাই হোপ, দেবেন্দ্র বিশু, চন্দরপল  হেমরাজ, শিমরন হেটমায়ার, কেমো পল, কাইরন পাওয়েল, ফ্যাবিয়ান অ্যালেন, কার্লোস ব্রাফেট, কেমার  রোচ, সুনীল অ্যামব্রিস ও ওশানে টমাস।

    18,141 total views, 306 views today

আজকের খবর

সম্পাদক ও প্রকাশক : খালিদ হাসান সিপাই.

নির্বাহী সম্পাদক : মাজহারুল হক মমিন।

বড় জামে মসজিদ মার্কেট, এন এস রোড কুষ্টিয়া।

০১৭১৬২৬৮৮৫৮, E-mail: Kushtiardiganta@gmail.com .