শিরোনাম

ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড প্রধান মি টু’ অভিযোগ থেকে মুক্তি পেলেন

নিজেস্ব প্রতিনিধিঃ হ্যাশট্যাগ মি টু দারুণ ধাক্কা দিয়েছিল ভারতীয় ক্রিকেটে। ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিসিআই) প্রধান নির্বাহী রাহুল জোহরির বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির অভিযোগ তুলেছিলেন সাবেক এক সহকর্মী, যার রেশ ধরে টালমাটাল অবস্থায় পড়ে গিয়েছিলেন জোহরি। এমনকি আইসিসি সভাতেও যোগ দেওয়া হয়নি তাঁর। আজ সেই অভিযোগ থেকে মুক্তি পেয়েছেন বোর্ডপ্রধান।

বিসিসিআইয়ের প্রধান নির্বাহী22222222র বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির অভিযোগ ওঠার পর তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। সেই কমিটিই যাচাইবাছাই ও পর্যবেক্ষণ শেষে আজ রায় দিয়েছে। তদন্ত কমিটির রিপোর্ট জানাতে গিয়ে বিচারক রাকেশ শর্মা জোহরির বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগকে ‘মিথ্যা ও ভিত্তিহীন’ বলে অভিহিত করেন। কমিটির সদস্য বারখা সিংও এই অভিযোগকে ‘উদ্দেশ্যপ্রণোদিত এবং বানোয়াট’ বলেন। এর ফলে বিসিসিআইয়ের প্রশাসনে দায়িত্ব চালিয়ে যেতে আর বাধা রইল না জোহরির।

এর আগে একজন ভুক্তভোগী দাবি করেছিলেন, চাকরির কথা বলে বাসায় ডেকে তাঁকে হেনস্তা করেছেন জোহরি। জোহরি তখন এখন শীর্ষ স্যাটেলাইট চ্যানেলের বিক্রয় বিভাগের প্রধান ছিলেন। টুইটারে লেখা সে অভিযোগে বলা হয়েছিল, ‘রাহুল জোহরি: বিসিসিআইয়ের বর্তমান প্রধান নির্বাহী, ডিসকভারি চ্যানেলের সাবেক কর্মকর্তা। রাহুল সাবেক সহকর্মী ছিলেন। রাজের বাসায় পার্টিতে, মিডিয়াতে সফল ব্যবসা গড়ার সময় এবং বিভিন্ন চ্যানেলে কাজ করার পুরো সময়টায় আমার সঙ্গে যোগাযোগ ছিল।’

মেসেজে দাবি করা হয়েছিল, একবার একটি চাকরি নিয়ে আলোচনার সময় জোহরি তাঁকে বাসায় যাওয়ার প্রস্তাব দেন। অভিযোগ দেওয়া নারীর দাবি, জোহরির স্ত্রীর সঙ্গে তাঁর পরিচয় ছিল। এর আগে দেখা করেছেন, দুজনকে বাসায় দাওয়াত করে খাইয়েছেন।

দুজনে যখন বাসার কাছে পৌঁছালেন, তখন জোহরি পকেট থেকে চাবি বের করতেই সন্দেহ হয়েছিল তাঁর। জিজ্ঞাসা করেছিলেন, স্ত্রী বাসায় নেই এটা কেন জানাননি জোহরি। জবাবে বর্তমান ক্রিকেট বোর্ড কর্মকর্তা বলেছিলেন, এটা জানানোর মতো কিছু না। বাসায় ঢুকে পানি চাইলে প্যান্ট নামিয়ে জোহরি এগিয়ে আসেন এবং হয়রানি করেন।

কয়েক দিনের ব্যবধানে আজ এই সব অভিযোগ থেকে মুক্তি পেলেন জোহরি।

106 total views, 1 views today

235,596 total views, 311 views today

প্রধান খবর

  • কুষ্টিয়াতে জামায়াত নেতার মায়ের মৃত্যুতে বিভিন্ন মহলের শোক

    নিজেস্ব প্রতিনিধিঃ কুষ্টিয়া জেলা জামায়াত নেতা, বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ, লেখক ও কলামলিষ্ট হাফেজ রফিক উদ্দিনের মা রবিবার বিকেল ৩ ঘটিকার সময় ইন্তেকাল করেছেন( ইন্না নিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাহি রাজিউন)। তার মৃত্যুতে এক শোক বার্তায় গভীর শোক জানিয়েছেন কুষ্টিয়া জেলা জামায়াতের আমির খন্দকার এ কে এম আলী মহসীন।

    এছাড়াও শোক প্রকাশ করেছেন জেলা জামায়াতের সিনিয়র নায়েবে আমির অধ্যাপক ফরহাদ হুসাইন, নায়েবে আমির আবুল হাসেম, জেলা ছাত্র শিবিরের সভাপতি , সেক্রেটারি , শহর শিবির সভাপতি, সেক্রেটারি ,শিক্ষক, লেখক পরিবার সহ বিভিন্ন মহল।

    বিশিষ্ট লেখক ও কলামলিষ্ট হাফেজ রফিক উদ্দিনের মায়ের মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেছেন অনলাইন ও প্রির্টিং পত্রিকা কুষ্টিয়ার দিগন্তের সম্পাদক ও প্রকাশক খালিদ হাসান সিপাহী ।

    সবাই মরহুমার আত্তার মাগফেরাত কামনা করেন এবং শোকাহত পরিবারে প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন।
    মরহুমার জানাযার নামাজ সোমবার সকাল ৯ ঘটিকার সময় অনুষ্ঠিত হবে।

    11,241 total views, 289 views today

আজকের খবর

সম্পাদক ও প্রকাশক : খালিদ হাসান সিপাই.

নির্বাহী সম্পাদক : মাজহারুল হক মমিন।

বড় জামে মসজিদ মার্কেট, এন এস রোড কুষ্টিয়া।

০১৭১৬২৬৮৮৫৮, E-mail: Kushtiardiganta@gmail.com .