শিরোনাম

আজ বিএনপির মনোনয়ন পেলেন যাঁরা

ঢাকা অফিসঃ াাাাাাাাাএকাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন উপলক্ষে দ্বিতীয় দিনের মতো দলীয় মনোনয়নের চিঠি দিচ্ছে বিএনপি। আজ মঙ্গলবার বেলা পৌনে একটার দিকে বিএনপি দ্বিতীয় দিনের কার্যক্রম শুরু করে।

বিকেল সোয়া ৪টা পর্যন্ত দলটির মনোনয়নের চিঠি পেয়েছেন যাঁরা, তাঁরা হলেন—

ঢাকা-৬ আসনে ইশরাক হোসেন, ঢাকা-১৩ আসনে মোহাম্মদ আবদুস সালাম, ঢাকা-১৭ আসনে ফরহাদ হালিম (ডোনার)।

ফরিদপুর-১ আসনে শাহ মোহাম্মদ আবু জাফর, ফরিদপুর-২ আসনে মোহাম্মদ শহিদুল ইসলাম, ফরিদপুর-৪ আসনে শাহরিয়া ইসলাম শায়লা।

ময়মনসিংহ-১ আসনে এমরান সালেহ প্রিন্স ও সালমান ওমর রুবেল, ময়মনসিংহ-২ আসনে শাহ শহীদ সারওয়ার, ময়মনসিংহ-৩ আহম্মেদ তায়েবুর রহমান ওরফে হিরণ ও ডক্টর মোহাম্মদ আবদুস সেলিম, ময়মনসিংহ-৪ আসনে আবু ওয়াহাব আকন্দ ওয়াহিদ, ময়মনসিংহ-৮ আসনে শাহ নূরুল কবির শাহীন, ময়মনসিংহ-৯ আসনে ইয়াসের খান চৌধুরী, ময়মনসিংহ-১০ আসনে মোহাম্মদ আখতারুজ্জামান।

চট্টগ্রাম-১ আসনে কামাল উদ্দীন আহমেদ, মোহাম্মদ মনিরুল ইসলাম ইউসুফ ও নুরুল আমিন, চট্টগ্রাম-৮ আসনে আবু সুফিয়ান, চট্টগ্রাম-১২ আসনে মোহাম্মদ এনামুল হক, চট্টগ্রাম-১৩ আসনে মুস্তাফিজুর রহমান, চট্টগ্রাম-৭ আসনে মো. শওকত আলী নূর।

কুমিল্লা-৩ আসনে শাহিদা রফিক ও কে এম মজিবুল হক, কুমিল্লা-৫ আসনে অধ্যাপক মোহাম্মদ ইউনুস, কুমিল্লা-৬ আসনে হাজী আমিনুর রশিদ ইয়াসিন, কুমিল্লা-৯ আসনে কর্নেল আনোয়ারুল আজীম।

জামালপুর-১ আসনে এম রশিদুজ্জামান মিল্লাত ও মো. আব্দুল কাইয়ুম, জামালপুর-৩ মোস্তাফিজুর রহমান বাবুল ও ব্যারিস্টার মোহাম্মদ বদরুদ্দোজা, জামালপুর-৪ আসনে ফরিদুর কবির তালুকদার শামীম, জামালপুর-৫ আসনে সিরাজুল হক।

কিশোরগঞ্জ-১ আসনে মোহাম্মদ রেজাউল করিম খান, কিশোরগঞ্জ-২ আসনে মোহাম্মদ শহীদুজ্জামান, কিশোরগঞ্জ-৫ আসনে শেখ মজিবুর রহমান ইকবাল বা মাহমুদুর রহমান উজ্জ্বল।

কুষ্টিয়া-২ আসনে ফরিদা ইয়াসমিন, কুষ্টিয়া-৩ আসনে অধ্যাপক সোহরাব উদ্দীন, কুষ্টিয়া-৪ আসনে সৈয়দ মেহেদী আহমেদ রুমি ও নুরুল ইসলাম আনসার পরামাণিক।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া-৩ তৌফিকুল ইসলাম ও ইঞ্জিনিয়ার খালেদ মাহমুদ শ্যামল।

নেত্রকোনা-২ আসনে এবি এম আবদুল বারি ও আসনে আশরাফ উদ্দীন খান, নেত্রকোনা-৩ আসনে রফিকুল ইসলাম হিলালি, নেত্রকোনা-৫ আসনে আবু তাহের তালুকদার ও রাবেয়া খাতুন।

রাজশাহী-৬ আসনে রমেশ দত্ত।

টাঙ্গাইল-৪ আসনে ইঞ্জিনিয়ার আবদুল হালিম মিয়া, টাঙ্গাইল-৭ আসনে সাইদুর রহমান, টাঙ্গাইল-৬ আসনে নুর মোহাম্মদ খান ও গৌতম চক্রবর্তী

বরগুনা-২ আসনে ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন তালুকদার।

মুন্সিগঞ্জ-১ শাহ মোয়াজ্জেম হোসেন, মুন্সিগঞ্জ-৩ আবদুল হাই।

ফেনী-১ আসনে আবদুল আওয়াল মিন্টু, ফেনী-৩ আসনে আবদুল লতিফ জনি

যশোর-৪ আসনে সুকৃতি কুমার মণ্ডল।

নরসিংদী-১ আসনে খায়রুল কবির খোকন, নরসিংদী-৩ আসনে মোহাম্মদ আকরামুল হাসান, নরসিংদী-৪ আসনে শাখাওযাত হোসেন বকুল, নরসিংদী-৫ আসনে মোহাম্মদ আশরাফ উদ্দিন ও এ কে নেছার উদ্দিন।

নারায়ণগঞ্জ-১ আসনে কাজী মনিরুজ্জামান, নারায়ণগঞ্জ-২ আসনে নজরুল ইসলাম আজাদ, নারায়ণগঞ্জ-৩ আসনে খন্দকার আবু জাফর ও আজাহারুল ইসলাম মান্নান, নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনে মোহাম্মদ মামুন মাহমুদ ও মোহাম্মদ শাহ আলম।

পঞ্চগড়-২ আসনে নাদিরা আক্তার, রংপুর–৪ আমিনুল ইসলাম রাঙ্গা, চট্টগ্রাম ১০ মোশাররফ হোসেন দীপ্তি, পিরোজপুর ২ ডা. মোহাম্মদ মোস্তাফিজুর রহমান।

চাঁদপুর-৫ আসনে এম এ মতিন ও ইঞ্জিনিয়ার মমিনুল হক, চাঁদপুর-৩ আসনে শেখ ফরিদ আহমেদ মানিক।

পাবনা-৪ আসনে সিরাজুল ইসলাম সর্দার।

নড়াইল-২ আসনে ফরিদ উজ জামান ফরহাদ।

শেরপুর-১ আসনে মোহাম্মদ হযরত আলী, শেরপুর-৩ আসনে মাহমুদুল হক রুবেল।

মৌলভীবাজার-১ আসনে নাসির উদ্দীন আহমদ, মৌলভীবাজার-৩ আসনে নাসের রহমান

সিলেট-৩ আসনে শরীফ আহমেদ চৌধুরী, সিলেট- ১ আসনে খন্দকার আবদুল মোক্তাদীর

গাইবান্ধা-৩ আসনে রওশন আরা খাতুন।

নাটোর-৪ আসনে জন গোমেজ।

গোপালগঞ্জ-২ আসনে ডা. কে এম বাবর ও সিরাজুল ইসলাম, গোপালগঞ্জ-৩ আসনে এস এম আফজাল হোসেন

সুনামগঞ্জ-১ আসনে কামরুজ্জামান কামরুল ও আনিসুল হক, সুনামগঞ্জ ৪ দেওয়ান জয়নুল জাকেরিন।

বরিশাল-৪ আসনে মোহাম্মদ রাজীব আহসান।

লক্ষ্মীপুর-২ আসনে হারুনুর রশিদ, লক্ষ্মীপুর-৩ আসনে মোহাম্মদ শাহবুদ্দীন সাবু।

রাজবাড়ী-১ আসনে আসলাম মিয়া

নীলফামারী-২ আসনে কাজী আক্তারুজ্জামান জুয়েল

58 total views, 2 views today

121,812 total views, 593 views today

প্রধান খবর

  • আজ ৯ ডিসেম্বর কুমারখালী হানাদার মুক্ত দিবস

    কুমারখালি প্রতিনিধি : ১৯৭১ সালের ৯ ডিসেম্বর এই দিনে পাকিস্তানী হানাদার বাহিনীকে পরাজিত করে কুমারখালীর মুক্তিযোদ্ধারা বিজয় ছিনিয়ে এনেছিলেন এবং কুমারখালীকে হানাদার মুক্ত করেছিলেন।

    ১৯৭১ সালের ৭ ডিসেম্বর সকালে মুক্তিযোদ্ধারা পরিকল্পিত ভাবে কুমারখালীতে প্রবেশ করে শহরের প্রাণকেন্দ্রে অবস্থিত কুন্ডুপাড়ার রাজাকারদের ক্যাম্প আক্রমণ করেন। রাজাকার কমান্ডার ফিরোজ বাহিনীর সঙ্গে মুক্তিযোদ্ধাদের তুমুল যুদ্ধ শুরু হয়।

    এ খবর কুষ্টিয়া জেলা শহরে অবস্থানরত পাক-সেনাদের কাছে পৌঁছালে তারা দ্রুত কুমারখালীতে এসে গুলিবর্ষণ করতে থাকলে পুরো শহর আতঙ্ক গ্রস্থ হয়ে পড়ে। এবং মুক্তিযোদ্ধারা তাদের অkkkkপর্যাপ্ত অস্ত্র ও সংখ্যায় কম থাকায় শহর ত্যাগ করেন।

    এ সময় পাকিস্তানি বাহিনী ও রাজাকাররা কুমারখালী শহরজুড়ে হত্যাযজ্ঞ, অগ্নিসংযোগ ও লুটতরাজ শুরু করে।৭ ডিসেম্বরের যুদ্ধে পাকিস্তানী বাহিনীর হাতে আওয়ামী লীগ নেতা মুক্তিযোদ্ধা তোসাদ্দেক হোসেন ননী মিয়া শহীদ হন।
    পাকিস্তানী হানাদারদের হত্যাযজ্ঞের শিকার হয়েছিলেন মুক্তিকামী বীর বাঙালী সামসুজ্জামান স্বপন, সাইফুদ্দিন বিশ্বাস, আব্দুল আজিজ মোল্লা, শাহাদত আলী, কাঞ্চন কুন্ডু, আবু বক্কার সিদ্দিক, আহমেদ আলী বিশ্বাস, আব্দুল গনি খাঁ, সামসুদ্দিন খাঁ, আব্দুল মজিদ ও আশুতোষ বিশ্বাস মঙ্গল।

    পরবর্তীতে মুক্তিযোদ্ধারা সুসংগঠিত হয়ে ৯ ডিসেম্বর পাকবাহিনীর ক্যাম্পে (বর্তমানে কুমারখালী উপজেলা পরিষদ) আক্রমণ করেন।

    দীর্ঘসময় যুদ্ধের পর পাকিস্তানি বাহিনী মুক্তিযোদ্ধাদের আক্রমণের কাছে টিকতে না পেরে দ্রুত ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যায় । ৯ ডিসেম্বরের যুদ্ধে মুক্তিযোদ্ধাদের হাতে রাজাকার কমান্ডার খুশি মারা যায়।

    এইদিন কুমারখালী শহর হানাদার মুক্ত হওয়ার পর সর্বস্তরের জনতা এবং মুক্তিযোদ্ধারা রাস্তায় নেমে আনন্দ মিছিল বের করেন।

    6,805 total views, 515 views today

আজকের খবর

সম্পাদক ও প্রকাশক : খালিদ হাসান সিপাই.

নির্বাহী সম্পাদক : মাজহারুল হক মমিন।

বড় জামে মসজিদ মার্কেট, এন এস রোড কুষ্টিয়া।

০১৭১৬২৬৮৮৫৮, E-mail: Kushtiardiganta@gmail.com .