ঢাকাFriday , 11 February 2022
  1. epaper
  2. অর্থনীতি
  3. আইন ও অপরাধ
  4. আন্তর্জাতিক
  5. ইতিহাস ঐতিহ্য
  6. ইসলামি দিগন্ত
  7. কুষ্টিয়ার সংবাদ
  8. কৃষি দিগন্ত
  9. খেলাধুলা
  10. গণমাধ্যম
  11. জনদূর্ভোগ
  12. জাতীয়
  13. জেলার খবর
  14. তথ্য প্রযুক্তি
  15. দিগন্ত এক্সক্লুসিভ

হিজাব বিতর্ক অবসানে সম্মত ভারতীয় সুপ্রিম কোর্ট

Link Copied!

ভারতীয় সুপ্রিম কোর্ট। ছবি: রয়টার্স শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ধর্মীয় পোশাক পরা যাবে না। ভারতের কর্ণাটক হাইকোর্টের এমন মন্তব্যের বিরুদ্ধে সুপ্রিম কোর্ট মামলা গ্রহণ করে মন্তব্য করেছেন, সঠিক সময়ই এ বিষয়ে শুনানি হবে। ফলে হিজাব বিতর্ক ফের নতুন মোড় নিল।

বিজেপি শাসিত কর্ণাটকের উড়ুপির কলেজে ছাত্রীদের হিজাব পরে যাওয়া নিয়ে বিতর্কের সূত্রপাত। হিন্দুত্ববাদীরা মাথায় গেরুয়া রুমাল বেঁধে হিজাব বিরোধী আন্দোলনে নামেন। অশান্তির জেরে বন্ধ হয় কলেজ। মামলা গড়ায় হাইকোর্টে।

কর্ণাটক হাইকোর্ট গতকাল বৃহস্পতিবার মন্তব্য করেন, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ধর্মীয় পোশাক বাঞ্ছনীয় নয়। পোশাক হবে প্রতিষ্ঠানের নিয়ম মতোই। কর্ণাটক সরকারও একই মত জানিয়েছে। হিজাবের পাশাপাশি গেরুয়া রুমালও নিষিদ্ধ হয় শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে।

এর প্রতিবাদে কলেজ ছাত্রী ফাতিমা বুশরা সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হন। তাঁর হয়ে মামলাটি লড়ছেন বর্ষীয়ান কংগ্রেস নেতা ও বিশিষ্ট আইনজীবী কপিল সিবাল। তিনি আদালতকে বলেন, হিজাব পরা বন্ধ করার নির্দেশ সংবিধান লঙ্ঘনের নামমাত্র।

১৫ ফেব্রুয়ারি থেকে কলেজে পরীক্ষা রয়েছে। তাই ফাতিমা সুপ্রিম কোর্টকে অনুরোধ করেছেন, দ্রুত হিজাব নিয়ে সর্বোচ্চ আদালত তাঁর মতামত জানান।

যুক্তি হিসেবে কপিল সিবাল বলেন, পছন্দের পোশাক পরা সকলের মৌলিক অধিকার। ভারতীয় সংবিধানে এই অধিকার স্বীকৃত। তাই ধর্মীয় পোশাক পরা নিয়ে কর্ণাটক হাইকোর্টের রায় অযৌক্তিক। গোটা দেশেই যে এই হিজাব বিতর্ক ছড়িয়ে পড়েছে সে কথাও স্মরণ করিয়ে দেন তিনি।

কংগ্রেস নেত্রী প্রিয়াঙ্কা গান্ধী ভদরা, বামপন্থী নেতা বিকাশরঞ্জন ভট্টাচার্য, তৃণমূল নেতা  শান্তনু সেন আগেই বলেছেন, কে কী পরবে, কে কী খাবে সেটা তাঁর ব্যক্তিগত অধিকার।

প্রধান বিচারপতি এনভি রামানা জানিয়েছেন, এ বিষয়ে উপযুক্ত সময়ে শুনানি হবে।

বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।