ঢাকাSaturday , 28 November 2020
  1. epaper
  2. অর্থনীতি
  3. আইন ও অপরাধ
  4. আন্তর্জাতিক
  5. ইতিহাস ঐতিহ্য
  6. ইসলামি দিগন্ত
  7. কুষ্টিয়ার সংবাদ
  8. কৃষি দিগন্ত
  9. খেলাধুলা
  10. গণমাধ্যম
  11. জনদূর্ভোগ
  12. জাতীয়
  13. জেলার খবর
  14. তথ্য প্রযুক্তি
  15. দিগন্ত এক্সক্লুসিভ

কুমারখালীর সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান আবিস্কার করলেন নতুন জাতের ধান

Link Copied!

কুষ্টিয়া জেলার কুমারখালী উপজেলার নন্দলালপুর ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম আবিস্কার করেছেন এক নতুন জাতের ধান। উচ্চ ফলনশীল এই ধানের রয়েছে কিছু বিশেষত্ব। আমন এবং বোরো দুই মওসুমে এই ধান চাষ করে বেশ ফলনও পেয়েছেন তিনি।
ঝিনাইদহের হরি বাবুর হরিধানের মতই নজরুল ইসলামের ধান আবিস্কারের ঘটনা অনেকটা মিল রয়েছে। সেক্ষেত্রে এই নতুন ধানকে ‘নজরুল ধান‘ নামকরণ করা বেশ যুক্তিযুক্ত।
সাবেক চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম ধান আবিস্কারের বিষয়ে জানান, দুই বছর আগে আমার একটি ধান ক্ষেতে কয়েকটি ধান গাছ ভিন্ন রকম চোখে পড়ে। বিশেষ করে গাছগুলো একটু লম্বা ও শক্ত ছিল । আমি আলাদা ভাবে সেই ধান সংগ্রহ করে পরের মওসুমে চারা তৈরি করেছিলাম। সে চারা থেকে আবার ধান উৎপাদন করে পুনরায় চারা তৈরি করে ১০ কাঠা জমিতে আবাদ করেছি। ২/৪ দিনের মধ্যেই এই ধান কাটবো।
তিনি আরো জানান, এই ধানের ছড়াগুলো খেজুরের ছড়ার মত দেখতে। অন্য ধানের ছড়ায় যেখানে সোজাসুজি ৩/৪ দানা থাকে সেখানে এই ধানে ৫/৭ দানা ঝুলতে দেখা যায়, ফলে ফলনও বিঘা প্রতি ৪/৫ মন বেশী হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। মোটাজাতের এই ধান বেশ সুস্বাদু ও পরিবেশ বান্ধব বলে তিনি জানান।
সাবেক চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম নতুন জাতের ধান আবিস্কার করার বিষয়টি বার বার উপজেলা কৃষি অফিসে অবগত করলেও তারা সহযোগীতা করা তো দুরের কথা সেই ধান ক্ষেত দেখতেও যাননি বলে তিনি চরম দুঃখ প্রকাশ করেছেন।
প্রচার এবং উপযুক্ত সুযোগ-সুবিধা পেলে নজরুল ইসলামের ধান জাতীয় ও আন্তর্জাতিক ক্ষেত্রে সুনাম বয়ে আনবে একথা বলায় যায়।
ক্যাপশন
কুমারখালী (কুষ্টিয়া) : সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম আবিস্কার করলেন নতুন জাতের ধান

বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।