বুধবার, ২৬ জানুয়ারী ২০২২, ০৪:৩৭ পূর্বাহ্ন

উন্নয়নের মহাসড়কে যখন দেশ তখন চরম অবহেলিত উপকূলবাসী

বিশেষ প্রতিনিধি: / ১১৪ বার নিউজটি পড়া হয়েছে
আপডেট টাইম : শনিবার, ২৯ মে, ২০২১, ১:৪২ অপরাহ্ন

  2021 /2022 অর্থবছরের বাজেটে উপকূলীয় এলাকায় স্থায়ী বেড়িবাঁধের জন্য অর্থ বরাদ্দ চাই জনপ্রতিনিধি ও সুশীল সমাজ, সাধারণ মানুষ তা না হলে উপকূল এলাকা গুলি পানির নিচে তলিয়ে যাবে বলে বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন। ৬০ দশকে তৈরি করা আয়তনে ছোট উপকুলীয় বেড়িবাঁধ কোন ভাবেই উপকূলীয় অঞ্চলকে সুরক্ষা দিতে পারবে না। তাই দ্রুত জলরাযু পরিবর্তন ও প্রাকৃতিক দুর্যোগকে বিবেচনায় রেখে নতুন পবিকল্পনায় বাঁধ নির্মাণ করতে হবে। সেক্ষেত্রে বাঁধের নিচে ৬০ ফুট ও উপরে ১০ ফুট চওড়া করতে হবে। যার উচ্চতা ২০ ফুট করা আজ সময়ের দাবি । কবোনা পরিস্থিতির মধ্যে ঘূর্ণিঝড় আম্পান ভয়াবহ মানবিক বিপর্যয় ডেকে এনেছে।সুপার সাইক্লোন আম্ফান পরবর্তী দুর্গত এলাকার মানুষ মানবেতর জীবন-যাপন করছে কিন্তু সাধারণ মানুষের দুরভোগ লাঘবে কোন জনপ্রতিনিধি, সরকারের পক্ষ থেকে কার্যকর কোন পদক্ষেপ নেই। স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের বাঁধ রক্ষণাবেক্ষণে তাদের কোন ভূমিকা নেই। অথচ এই বাঁধ ভেঙে গেলে যে চরম দুর্যোগ তৈরি হয় তার ধকল স্থানীয় সরকারকে পোহাতে হয়। তাই বাঁধ ব্যবস্থাপনার জন্য ইউনিয়ন পরিষদ ও উপজেলা পরিষদের আওতায় একটি জরুরি তহবিল গঠন করতে হবে। বাঁধ ব্যবস্থাপনায় স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদকে সম্পৃক্ত করতে হবে। ঘূর্ণিঝড় ও জ্বলোচ্ছাসে বেড়িবাঁধ ভেঙ্গে খুলনা-সাতক্ষীরা অঞ্চলে বিভিন্ন সময়ে লাখ লাখ মানুষ পানিবন্দি হয়েছে । সেই সাথে চলছে তীব্র বিশুদ্ধ পানি সংকট।
উপকূলীয় এলাকায় সুপেয় পানির ভয়াবহ সঙ্কট দেখা দিয়েছে। ফলে জনজীবন বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে। এমতাঃবস্থায় ঘূর্ণিঝড় দুর্গত উপকূলীয় মানুষের দুর্ভোগ লাঘবে টেকসই ও স্থায়ী বেড়িবাঁধ নির্মান অপরিহার্য হয়ে পড়েছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর ....

এক ক্লিকে বিভাগের খবর