ঢাকাSaturday , 29 May 2021
  1. epaper
  2. অর্থনীতি
  3. আইন ও অপরাধ
  4. আন্তর্জাতিক
  5. ইতিহাস ঐতিহ্য
  6. ইসলামি দিগন্ত
  7. কুষ্টিয়ার সংবাদ
  8. কৃষি দিগন্ত
  9. খেলাধুলা
  10. গণমাধ্যম
  11. জনদূর্ভোগ
  12. জাতীয়
  13. জেলার খবর
  14. তথ্য প্রযুক্তি
  15. দিগন্ত এক্সক্লুসিভ

রাজধানীতে ফের চলন্ত বাসে ধর্ষণ, কুষ্টিয়ার এক যুবকসহ গ্রেফতার ৬

Link Copied!

দেশে চলন্ত বাসে ফের ধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে। আশুলিয়ায় এক নারী (২২) বাসে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের শিকার হয়েছেন। ধর্ষণের অভিযোগে চালক, হেলপারসহ ছয় জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। শনিবার (২৯ মে) দুপুরে তাদের আদালতে পাঠানো হয়। এর আগে শুক্রবার (২৮ মে) গভীর রাতে সিঅ্যান্ডবি-আশুলিয়া সড়কে এ ঘটনা ঘটে ।

আটক ব্যক্তিরা হলেন নিউগ্রাম মিনিবাসের চালক সুমন (২৪), সহকারী মনোয়ার (২৪), তুরাগ থানা এলাকার নজরুল ইসলামের ছেলে আরিয়ান (১৮), কুষ্টিয়া জেলার আতিয়ারের ছেলে সাজু (২০), বগুড়া জেলার ধুনট থানা এলাকার তোফাজ্জল হোসেনের ছেলে সোহাগ (২৫) ও বগুড়া জেলার ধুপচাচিয়া থানার সামছুলের ছেলে সাইফুল ইসলাম (৪০)।

তারা সবাই তুরাগ থানার কামারপারা ভাসমান এলাকায় ভাড়া থেকে আব্দুল্লাহপুর-বাইপাইল-নবীনগর মহাসড়কে মিনিবাস চালক ও হেলপার।

মামলা সূত্রে জানা যায়, ভুক্তোভোগী নারী তার এক পরিচিত ব্যক্তির সঙ্গে শুক্রবার রাতে নবীনগর এলাকা থেকে একটি মিনিবাসে টঙ্গী স্টেশন রোডের উদ্দেশে রওনা দেন। পথে ওই মিনিবাসের সব যাত্রী নেমে যায়। পরে বাসের চালক ও হেলপারসহ তাদের সঙ্গে থাকা আরও চার ব্যক্তি মিনিবাসটি ঘুরিয়ে ফের নবীনগরের উদ্দেশে রওনা হয়। এসময় সিঅ্যান্ডবি আশুলিয়া সড়কে ওই বাসের জানালা দরজা আটকে নারীকে সংঘবদ্ধভাবে ধর্ষণ করা হয়। সন্দেহ হলে সড়কে দায়িত্বে থাকা টহল পুলিশ বাস থামিয়ে ওই নারীকে উদ্ধার করে ও ঘটনার সঙ্গে জড়িত ছয় জনকে গ্রেফতার করে।

বিষয়টি নিশ্চিত করে আশুলিয়া থানার পরিদর্শক (তদন্ত) জিয়াউল ইসলাম বলেন, রাতেই অভিযুক্তদের আটক করা হয়েছে। এ ঘটনায় একটি মামলা দায়ের করে দুপুরে আদালতে পাঠানো হবে। এছাড়াও ওই নারীকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে বলেও জানান তিনি।

দেশে এর আগেও চলন্ত বাসে তরুণী ধর্ষণের ঘটনা ঘটে। ২০১৭ সালে একটি চলন্ত বাসে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের পর ঘাড় মটকে তরুণীকে হত্যা করে রাস্তার পাশে ফেলে দেওয়ার ঘটনা ঘটে।

বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।