ঢাকাSunday , 21 November 2021
  1. epaper
  2. অর্থনীতি
  3. আইন ও অপরাধ
  4. আন্তর্জাতিক
  5. ইতিহাস ঐতিহ্য
  6. ইসলামি দিগন্ত
  7. কুষ্টিয়ার সংবাদ
  8. কৃষি দিগন্ত
  9. খেলাধুলা
  10. গণমাধ্যম
  11. জনদূর্ভোগ
  12. জাতীয়
  13. জেলার খবর
  14. তথ্য প্রযুক্তি
  15. দিগন্ত এক্সক্লুসিভ

দশম ইউপি নির্বাচনে খোকসা ও কুমারখালীর নৌকার মাঝি যারা-

মাহমুদ শরীফ
November 21, 2021 1:24 pm
Link Copied!

দশম ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনের চতুর্থ ধাপের তফসিল ঘোষণা করেছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। তফসিল অনুযায়ী, আগামী ২৩ ডিসেম্বর সারাদেশের ৮৪০টি ইউনিয়ন পরিষদে জনপ্রতিনিধি নির্বাচনে ভোট নেওয়া হবে। তার মধ্যে বিভিন্ন জেলার ৩৩ টি ইউনিয়নে ইভিএম পদ্ধতিতে ভোট গ্রহণ হবে।

কুষ্টিয়া জেলার খোকসা ও কুমারখালী উপজেলার মোট ২০ ইউনিয়নে ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। খোকসায় ০৯ টি এবং কুমারখালী ১১ টি। এর মধ্যে নৌকার পেলেন যারা তাদের নাম হলো- অনেক নতুন মুখও এসেছে এবার।

খোকসার ইউনিয়ন সমূহ:-
১.গোপগ্রাম–মো আলমগীর হোসেন
২.শিমুলিয়া–আব্দুল মজিদ খান
৩.জয়ন্তীহাজরা– মো আব্দুর রাজ্জাক
৪. বেতবাড়িয়া– মো বাবুল আকতার
৫. ওসমানপুর–মো আনিসুর রহমান
৬. জানিপুর–মো হবিবর রহমান
৭. আমবাড়িয়া–মো মনিরুজ্জামান বিশ্বাস
৮. খোকসা– মো আব্দুল মালেক
৯. শোমসপুর– মো বদর উদ্দিন খান ।

কুমারখালীর ইউনিয়ন সমূহ:-
১. কয়া– সাদিয়া জামিল
২. শিলাইদহ – মো সালাউদ্দিন খান তারেক
৩.জগন্নাথপুর –শেখ ফারুক আজম
৪. সদকী – মিনহাজুল আবেদীন দ্বীপ
৫.নন্দলালপুর –মো নওশের আলী বিশ্বাস
৬. চাপড়া –মনির হাসান রি ন্টু
৭.বাগুলাট –মো আজিজুল হক নবা
৮. যদুবয়রা –মিজানুর রহমান মিজান
৯. চাঁদপুর –মো সোহরাব উদ্দিন মিয়া
১০. পান্টি – মো কামরুজ্জামান
১১. চরসাদীপুর– মো তোফাজ্জেল হোসেন

কুমারখালীর বিষয়ে জানা গেছে, গত ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে কয়া ইউনিয়নে বর্তমান চেয়ারম্যান জিয়াউল হক স্বপন বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে নির্বাচিত হন, শিলাইদহে বর্তমান চেয়ারম্যান সালাউদ্দিন খান তারেক নৌকা প্রতীকে নির্বাচিত হয়েছিল, জগন্নাথপুরের বর্তমান চেয়ারম্যান ফারুক আহমেদ খান। তিনি নৌকা প্রতীকে নির্বাচিত হয়েছিলেন।এবার তিনি দলীয় মনোনয়ন বঞ্চিত হয়েছেন,তার পরিবর্তে এবার নৌকার মাঝি হয়েছেন শেখ ফারুক আযম হান্নান, সদকীর বর্তমান চেয়ারম্যান আব্দুল মজিদ। তিনি গেলবার বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে নির্বাচিত হয়েছিলেন, এবার এই ইউনিয়নে নৌকা প্রতীক দেওয়া হয়েছে মিনহাজুল আবেদীন দ্বীপকে, নন্দনালপুর ইউনিয়নের গেলবার নৌকা প্রতীকে নওশের আলী বিশ্বাস নির্বাচিত হয়েছিলেন। চাপড়াতে বর্তমান চেয়ারম্যান চেয়ারম্যান মনির হাসান। তিনি নৌকা প্রতীকে নির্বাচিত হয়েছিলেন।

বাগুলাটের বর্তমান চেয়ারম্যান আলাউদ্দিন আহমেদ। তিনি বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে নির্বাচিত হয়েছিলেন। যদুবয়রাতে বর্তমান চেয়ারম্যান শরিফুল আলম। তিনি এবার দলীয় মনোনয়ন থেকে বঞ্চিত। চাদপুরে বর্তমান চেয়ারম্যান তুষারুজ্জান। তিনি বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে নির্বাচিত হয়েছিলেন। পান্টির বর্তমান চেয়ারমান হাফিজুর রহমান। তিনি বিরোধী দল (বিএনপি) থেকে নির্বাচিত। চরসাদীপুর ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান মো. তোফাজ্জেল হোসেন। তিনি নৌকা প্রতীকে নির্বাচিত হয়েছিলেন।

এ বিষয়ে কুমারখালী থানা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ও পৌর মেয়র সামসুজ্জামান অরুণ বলেন, যেহেতু কেন্দ্রের ইচ্ছায় সব কিছু হয়েছে তারপরও এবারের নির্বাচনে উপজেলার ১১ টি ইউনিয়নের মধ্যে নয়টি ইউনিয়নেই যোগ্য প্রার্থীকেই নৌকার মাঝি করা হয়েছে, কিন্তু যদুবয়রা ও পান্টি ইউনিয়নে নৌকার যোগ্য প্রার্থী দেওয়া হয়নি, যে কারনে এই দুই ইউনিয়নে একাধিক বিদ্রোহী প্রার্থী হতে পারে, তাতে দলের ভাবমূর্তি নষ্ট হবে।

গত ১০ নভেম্বর দুপুরে কমিশনের বৈঠক শেষে এক সংবাদ ব্রিফিংয়ে তফসিল ঘোষণা করেন ইসি সচিব হুমায়ুন কবীর। প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নূরুল হুদার সভাপতিত্বে কমিশনের ৮৯তম কমিশন বৈঠক শেষে এই তফসিল ঘোষণা করা হয়।

নির্বাচন ভবনের সভাকক্ষে অনুষ্ঠিত বৈঠক শেষে ইসি সচিব হুমায়ুন কবীর জানান, নির্বাচনের তফসিল অনুযায়ী— ইউপি চেয়ারম্যান, সাধারণ সদস্য ও সংরক্ষিত নারী সদস্য পদে নির্বাচন করতে আগ্রহীদের মনোনয়নপত্র জমা দেওয়া শেষ তারিখ ২৫ নভেম্বর। মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাই হবে ২৯ নভেম্বর।

তফসিলের তথ্য বলছে, এরপর ৩০ নভেম্বর থেকে ২ ডিসেম্বর পর্যন্ত বাছাইয়ে বৈধ প্রার্থীরা মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করতে পারবেন। প্রার্থিতা প্রত্যাহারের সময় শেষ হলে ৬ ডিসেম্বর প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীদের মধ্যে প্রতীক বরাদ্দ দেওয়া হবে। দুই সপ্তাহের প্রচার-প্রচারণা শেষে ২৩ ডিসেম্বর ভোট নেওয়া হবে।

এদিকে মনোনয়ন পাওয়ার পর থেকেই প্রার্থীর লোকজন মিষ্টি বিতরণ করছে।

বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।