ঢাকাFriday , 18 September 2020
  1. epaper
  2. অর্থনীতি
  3. আইন ও অপরাধ
  4. আন্তর্জাতিক
  5. ইতিহাস ঐতিহ্য
  6. ইসলামি দিগন্ত
  7. কুষ্টিয়ার সংবাদ
  8. কৃষি দিগন্ত
  9. খেলাধুলা
  10. গণমাধ্যম
  11. জনদূর্ভোগ
  12. জাতীয়
  13. জেলার খবর
  14. তথ্য প্রযুক্তি
  15. দিগন্ত এক্সক্লুসিভ

কুমারখালীতে নবম শ্রেণির ছাত্রের সাথে এক সন্তানের মায়ের কোর্ট ম্যারেজ

Link Copied!

কুষ্টিয়ার কুমারখালী উপজেলার দুর্গাপুর গ্রামের নবম শ্রেণির ছাত্রকে তালাক প্রাপ্ত এক সন্তানের মায়ের কোর্ট ম্যারেজ নামকরণে বিয়ে করার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

নবম শ্রেণির ছাত্র স্বপ্নীল শাহারিয়ারের পিতা সাইফুল ইসলাম জানান, চলতি বছরের ৩০ মে ৫ লাখ টাকা দেনমোহরে পৌরসভার ২ নং ওয়ার্ডের এলঙ্গীপাড়া গ্রামের আজিম উদ্দিনের মেয়ে আজমি আক্তার রিয়া তার ছেলের সাথে কোর্ট ম্যারেজ করেছে বলে দাবী করে। এবং সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে সে কান্না জড়িত কন্ঠে তাকে স্বপ্নীলের পরিবার থেকে নির্যাতন করে মাথা ফাটিয়ে দিয়েছে এবং স্বপ্নীলকে লুকিয়ে রাখা হয়েছে বলে পোস্ট দিয়ে তাকে সামাজিক ভাবে হেয় প্রতিপন্ন করার চেষ্টা করে। তিনি বলেন স্বপ্নীলের জন্ম সনদ, ৮ম শ্রেণির রেজিষ্ট্রেশন কার্ড এবং ৫ম শ্রেণির প্রশংসা পত্র অনুযায়ী তার জন্ম তারিখ ২৭/০৭/২০০৭। সে অনুযায়ী তার বয়স ১৩ বছরের কিছু বেশী অথচ আজিমের মেয়ে আজমী ২১ বছর বয়সী ২ বছরের শিশু সম্তানের মা হয়ে কিকরে নাবালককে বিয়ে করতে পারে বা তার কোন আইনত গ্রহণযোগ্যতা আছে কিনা এই প্রশ্ন নিয়ে দ্বারে দ্বারে ঘুরছেন সুবিচারের আশায়। তিনি আরো জানান এ বিষয় নিয়ে পৌরসভায় অভিযোগ দিলে পৌরমেয়র মেয়ে পক্ষকে হাজির হতে বললে তারা নানা টালবাহানা করে পৌরসভায় হাজির হননি। এবং আজমি আক্তার তার ছেলের সাথে বিয়ের যে নিকাহনামা দেখায় খোঁজ নিয়ে দেখা যায় ভেড়ামারা উপজেলার উল্লেখিত নিকাহ ও তালাক রেজিস্ট্রার মোঃ শফিউল আলম এই বিয়ে রেজিষ্ট্রেশন করেননি বলে দাবী করেন এবং তিনি তার নাম ভাঙিয়ে প্রতারণার মাধ্যমে কেউ এই বিবাহ দিয়েছে মর্মে প্রত্যায়নপত্র প্রদান করেন।

অপরদিকে আজমি আক্তার রিয়া জানান, তার চাচাতো ভাই রাব্বি তাকে সাথে নিয়ে গিয়ে কোর্ট থেকে স্বপ্নীলের সাথে বিয়ে দেয়। এবং সে ৪ মাসের অন্তঃসত্ত্বা। তালাকপ্রাপ্ত এবং সন্তানের মা হয়ে কিভাবে ১৩ বছরের ছেলেকে বিয়ে করেছে বলে দাবী করছে এমন প্রশ্নে জানান স্বপ্নীল দীর্ঘদিন ধরে তাকে উত্যক্ত করতো এবং এক পর্যায়ে তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। উত্যক্ত করাকালীন আইনি কোন ব্যবস্থা কেন নেয়া হয়নি তার কোন সদুত্তর দেননি। রবিউলের ছেলে রাব্বি কিভাবে কোর্ট থেকে বিয়ে দিয়েছে জানার জন্য তার বাড়িতে গেলে সে দৌড়ে পালিয়ে যায়।

বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।