রবিবার, ২৩ জানুয়ারী ২০২২, ০৫:০৬ পূর্বাহ্ন

মার্কিন নিষেধাজ্ঞাকে অবশ্যম্ভাবী পরিণতি বললেন ফখরুল

নিজস্ব প্রতিনিধি / ২৬ বার নিউজটি পড়া হয়েছে
আপডেট টাইম : শনিবার, ১১ ডিসেম্বর, ২০২১, ১১:৪৪ পূর্বাহ্ন

মানবাধিকার লঙ্ঘনের কাজে জড়িত থাকার অভিযোগে বাংলাদেশের ছয়জন কর্মকর্তার ওপর মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের নিষেধাজ্ঞাকে অবশ্যম্ভাবী পরিণতি বলে মনে করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

শনিবার ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে ন্যাশনাল পিপলস পার্টির (এনপিপি) উদ্যোগে এক আলোচনা সভায় এ মন্তব্য করেন তিনি।

‘বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তি, বিদেশে চিকিৎসার দাবিতে এবং মহান স্বাধীনতা যুদ্ধে শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের ভূমিকা’শীর্ষক এ সভা অনুষ্ঠিত হয়।

শুক্রবার গুরুতর মানবাধিকার লঙ্ঘনমূলক কাজে জড়িত থাকার অভিযোগে বাংলাদেশের পুলিশের এলিট ফোর্স র‍্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‍্যাব) এবং এর ছয়জন বর্তমান ও সাবেক কর্মকর্তার ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। এরফলে নিষেধাজ্ঞাপ্রাপ্ত ব্যক্তিরা যুক্তরাষ্ট্রের ভিসা পাবেন না। এরা যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশের জন্য অযোগ্য বলেও বিবেচিত হবেন।

এই নিষেধাজ্ঞা প্রসঙ্গে তিনি বলেন, আজকে আমাদের তরুণ নেতা বলেছেন যে, চমক। আজকে যে খবরটা বেরিয়েছে। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র বেনজির ও র‍্যাব প্রধানের উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে। আমি এটাকে চমক মনে করি না। এটাকে আমি মনে করি, অবশ্যম্ভাবী পরিণতি। এটাই তাদের পরিণতি এজন্য যে, এধরণের যারা মানবাধিকার লঙ্ঘন করে, যারা মানুষের অধিকারকে কেড়ে নেয়, যারা জনগণকে হত্যা করে তাদেরকে এভাবেই…।

‘জামাল ভাই বলেছেন যে, আহ্লাদের কারণ নেই। আমি তার সঙ্গে একমত না। অবশ্যই আহ্লাদের কারণ আছে। আমরা এতোদিন ধরে যে কথাগুলো বলে আসছি, আমরা এতোদিন বলছি যে, মানবাধিকারকে হরণ করা হচ্ছে, আমরা বলছি যে- এই সরকার রাষ্ট্রযন্ত্রকে ব্যবহার করছে, পুলিশ, প্রশাসনকে ব্যবহার করে মানুষকে নির্মমভাবে হত্যা করছে। আজকে এটা প্রমাণিত হয়েছে।’

গণতান্ত্রিক সম্মেলনের কথা উল্লেখ করে মির্জা ফখরুল বলেন, গতকাল যে অনুষ্ঠান হয়েছে, সেই গণতান্ত্রিক সম্মেলনে বাংলাদেশকে ডাকা হয় নাই। এটাও প্রমাণিত হয়েছে, এই সরকার বাংলাদেশকে একটা লজ্জার মধ্যে ফেলে দিয়েছে। এখন আমার প্রশ্ন, আমরা দেখতে ও জানতে চাই, এই সরকার এই সমস্ত ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে ‘যারা মানবাধিকার লঙ্ঘন করেছে’ কি ব্যবস্থা গ্রহণ করছে।

তিনি বলেন, কি লজ্জা আমাদের। আমাদের পুলিশ প্রধান, আমাদের র্যাব প্রধান- তাদেরকে আজকে যুক্তরাষ্ট্রের মতো একটি দেশ নিষেধাজ্ঞা জারি করছে! কি কারণে? যে তোমরা মানবাধিকার লঙ্ঘন করেছো। তোমরা বেআইনীভাবে মানুষকে হত্যা করেছো। সুতরাং এই জবাব তো জনগণকে দিতেই হবে।

খালেদা জিয়াকে মিথ্যা মামলা দিয়ে কারাগারে আটকে রেখেছে অভিযোগ করে বিএনপি মহাসচিব বলেন, খালেদা জিয়াকে (কারাগারে) চিকিৎসা দেয়নি। যার ফলে আজকে খালেদা জিয়া অত্যন্ত গুরুতর রোগে ভুগছেন এবং তিনি জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে। আজকে তাকে চিকিৎসা না দিয়ে তার সমস্ত মানবাধিকারগুলো হরণ করে এবং মিথ্যা মামলায় সাজা দিয়ে আজকে বেগম জিয়াকে মৃত্যুর দিকে ঠেলে দেয়া হচ্ছে।

এনপিপির চেয়ারম্যান ড. ফরিদুজ্জামান ফরহাদের সভাপতিত্বে সভায় জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান (কাজী জাফর) মোস্তফা জামাল হায়দার, কল্যাণ পার্টির চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল (অব.) সৈয়দ মুহাম্মদ ইবরাহিম, বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আমান উল্লাহ আমান, আবদুস সালাম, ডাকসুর সাবেক ভিপি নুরুল হক নুর প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

বাংলাদেশ জার্নাল/


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর ....

এক ক্লিকে বিভাগের খবর