ঢাকাTuesday , 13 October 2020
  1. epaper
  2. অর্থনীতি
  3. আইন ও অপরাধ
  4. আন্তর্জাতিক
  5. ইতিহাস ঐতিহ্য
  6. ইসলামি দিগন্ত
  7. কুষ্টিয়ার সংবাদ
  8. কৃষি দিগন্ত
  9. খেলাধুলা
  10. গণমাধ্যম
  11. জনদূর্ভোগ
  12. জাতীয়
  13. জেলার খবর
  14. তথ্য প্রযুক্তি
  15. দিগন্ত এক্সক্লুসিভ

এমসির ছাত্রাবাসে গণধর্ষণ: সাইফুরসহ ৪ আসামির ছাত্রত্ব বাতিল

kushtiardiganta
October 13, 2020 7:04 am
Link Copied!

বিশেষ প্রতিনিধি
==========
সিলেট মুরারী চাঁদ (এমসি) কলেজ ছাত্রাবাসে গৃহবধূকে গণধর্ষণ মামলার প্রধান আসামি সাইফুর রহমানসহ চারজনের ছাত্রত্ব ও সনদ বাতিল করেছে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়। সেই সঙ্গে এমসি কলেজ থেকে তাদের স্থায়ীভাবে বহিষ্কার করা হয়েছে।

এমসি কলেজের অধ্যক্ষ মো. সালেহ আহমদ এ তথ্য নিশ্চিত করে জানান, সোমবার (১২ অক্টোবর) জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের সিন্ডিকেট কমিটির বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। মাহফুজ ব্যতীত অন্যরা এমসি কলেজের সাবেক ছাত্র ছিলেন। সিন্ডিকেট সভায় সভাপতিত্ব করেন জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. হারুন-অর-রশিদ।
জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় সূত্র জানায়, ধর্ষণ মামলার আসামি হওয়ায় এমসি কলেজের অধ্যক্ষের লিখিত আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে ওই চারজনের ছাত্রত্ব এবং সার্টিফিকেট বাতিল করা হয়। তারা চারজনই এমসি কলেজের ছাত্র ছিলেন।
ছাত্রত্ব বাতিল হওয়া চার শিক্ষার্থী হলেন— বিএসএস ডিগ্রি পাস কোর্সের ২০১২-১৩ শিক্ষাবর্ষের (অনিয়মিত) ছাত্র সাইফুর রহমান (২৮) তার রেজিস্ট্রেশন নম্বর ২৯৪৯৪১৩। ২০১৬-১৭ শিক্ষাবর্ষের ইংরেজি মাস্টার্স ফাইনাল বর্ষের শাহ মাহবুবুর রহমান ওরফে রনি (২৫), রেজিস্ট্রেশন নম্বর ১৬৩১১০২৩১৪২। বিএসএস ডিগ্রি পাস কোর্সের ২০১৩-১৪ শিক্ষাবর্ষের রবিউল ইসলাম (২৫), রেজিস্ট্রেশন নম্বর ১৩১০২০৫১২৪৮ এবং ২০১৭-১৮ শিক্ষাবর্ষের ইংরেজি বিভাগের মাস্টার্স ফাইনাল বর্ষের মাহফুজুর রহমান (২৫), রেজিস্ট্রেশন নম্বর ১৭৩১১০২৪৪৮৪।
গত ২৫ সেপ্টেম্বর (শুক্রবার) সন্ধ্যায় সিলেট এমসি কলেজ ছাত্রাবাসে স্বামীকে বেঁধে রেখে এক তরুণীকে গণধর্ষণ করেন ছাত্রলীগের কয়েকজন নেতাকর্মী। অভিযুক্তরা সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক যুব ও ক্রীড়াবিষয়ক সম্পাদক রণজিৎ সরকারের অনুসারী বলে জানায় দলীয় সূত্র। পরে রাত সাড়ে ১০টায় ওই তরুণীকে উদ্ধার করে ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ওসিসিতে ভর্তি করে পুলিশ।

বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।