শুক্রবার, ২৮ জানুয়ারী ২০২২, ১০:০৩ অপরাহ্ন

ভায়াগ্রা, শারীরিক সম্পর্ক, অবশেষে হাসপাতাল

আন্তর্জাতিক ডেক্স / ১০৫ বার নিউজটি পড়া হয়েছে
আপডেট টাইম : বুধবার, ১২ জানুয়ারী, ২০২২, ১১:০১ পূর্বাহ্ন

ইংল্যান্ডের লিভারপুলের মেকআপ আর্টিস্ট ইসাবেলা উলফ (২৫) এবং তার দীর্ঘদিনের পার্টনার রব অ্যানড্রুজ (৩২) একটু দূরে কোথাও লুটোপুটি প্রেম প্রেম খেলতে গিয়েছিলেন। সাপ্তাহিক ছুটিকে তারা আনন্দময় করতে সঙ্গে নিয়েছিলেন শ্যাম্পেন আর যৌন উত্তেজক ভায়াগ্রা। এসব ব্যবহার করে অবাধ মেলামেশায় লিপ্ত হন তারা। কিন্তু শেষ পর্যন্ত রব অ্যানড্রুজকে নিতে হয়েছে হাসপাতালে। ইসাবেলা বলেছেন, তাদের প্রেমের তৃতীয় বার্ষিকীতে দেশের ভিতরেই একটি কেবিন ভাড়া নিয়েছিলেন। অর্ডার করেছিলেন সেক্স টয় ও আনুষঙ্গিক জিনিসপত্র। আর রব অ্যানড্রুজ ইন্টারনেটে অর্ডার দিয়ে কিছু ভায়াগ্রা নিয়ে নেয়, যাতে পুরোটা ছুটি আনন্দে কাটানো যায়। তার ভাষায়- ওই কেবিনে গিয়ে আমরা শ্যাম্পেনের বোতল খুললাম।

তারপর এক গ্লাস দু’গ্লাস করে মেরে যেতে লাগলাম। সঙ্গে যোগ হলো ভায়াগ্রা। ফলে আমাদের ম্যারাথন শারীরিক সম্পর্ক চলতেই থাকে। কিন্তু এক পর্যায়ে রব অ্যানড্রুজের প্রাণশক্তি ফুরিয়ে আসতে থাকে। বিষয়টি আমি লক্ষ্য করিনি। কারণ, তখন আমিও ছিলাম মদ্যপ। আমি লাফিয়ে তার শরীরের ওপর উঠলাম। শুনলাম কিছু একটা ভেঙে যাওয়ার শব্দ। এরপরই দেখি অনেক রক্ত। এম্বুলেন্স ডাকা হলো। তারা কেবিনে আসার আগে আমরা সেক্সটয়, চেইন ও আনুষঙ্গিক জিনিসগুলো সরিয়ে ফেলতে ভুলে গিয়েছিলাম।

উলফ বলেন, পরিস্থিতিটা ছিল বিব্রতকর। কিন্তু এই কাহিনী তিনি তার নাতিপুতিদের মধ্যে মজার কাহিনী হিসেবে তুলে রাখবেন বলে জানিয়েছেন। বলেছেন, ওই অবস্থায় আমি মারাও যেতে পারতাম। হাসপাতালের এক্সরে’তে দেখা গেল রব অ্যান্ডড্রুজের বিশেষ অঙ্গে ফ্রাকচার হয়েছে। সৌভাগ্য যে, তা চিকিৎসায় আবার ঠিক হয়েছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর ....

এক ক্লিকে বিভাগের খবর